1. admin@shopneralo.com : admin :
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৩:২৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে সেন্ট্রাল লিকুইড অক্সিজেন প্লান্টের উদ্বোধন ব্রাহ্মণবাড়িয়া রিপোর্টার্স ক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় করেন বিএমএসএফ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রতিবন্ধীদের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ নিবন্ধন ছারা নৌযান চলতে পারবে না-ইউএনও এ এইচ ইরফান উদ্দিন আহমেদ প্রধানমন্ত্রীর নিকট ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রগতিশীল জোটের স্মারকলিপি প্রদান বিজয়নগরে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেন ইউএনও এএইচ ইরফান উদ্দিন আহমেদ কুমিল্লা-৭ উপনির্বাচন: নৌকার মনোয়ন পেলেন ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত বিজয়নগর নৌকা দুর্ঘটনার স্থান পরিদর্শন করেন সাংসদ র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী বিজয়নগর উপজেলার সকলকে নিজের আপন মানুষ ভেবে কাজ করেছি ফুলেল শুভেচ্ছায় বিদায়ী জানান বিজয়নগর উপজেলা ১০ ইউনিয়ন পরিষদের সচিবরা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল একজন প্রতিবন্ধী টিউমার অপারেশন করে নজীর স্থাপন করল

মো: তফসিরুল ইসলাম
  • সময় : মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ৫৭১ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

হাত পা সবখানে বিকলাঙ্গ চার বছর যাবত সমস্যা, একবছর যাবত ব্লিডিং থামছেইনা।অনেক বার রক্ত দিতে হয়েছে। শহরের বিভিন্ন গাইনোকোলজিস্ট ঢাকা রেফার করেছেন। স্বামী পরিত্যক্ত আসমার অসুস্থ মা-ই একমাত্র ভরসা।ডাক্তার আবু সাঈদ এর হাসপাতালে নিরাশ করবেনা, সেই আশায় বুকবেধে ৩০ তারিখ ব্রাহ্মণ বাড়িয়া মেডিকেলে ডাক্তার রণজিৎ এর অধীনে ভর্তি হয়। ডাঃ মমতাজ রুগী চেক আপ করে অজ্ঞান করাতে রাজি হন।ডাঃ রণজিৎ আগের দিনই সকল আই এম ও এবং ইন্টার্ন ডাক্তারদের এলার্ট করেন। কালকে সকলের উপস্থিতিতে ডাঃ নাসিমা কে নিয়ে অপারেশন শুরু। ডাঃনাসিমা ভাবতে ছিলেন কি জানি ভাগ্যে কি আছে। ভাগ্য সহায়।স্যারের দৃরতায় অনেক দক্ষতায় প্রায় এক কেজি ওজনের টিউমারটি আনতে সক্ষম হন। প্রতিবন্ধী আসমা বারবার বলতে ছিলো স্যার আমাকে বাঁচাতে পারবেনতো,আমার কেউ নেই।এখন আসমা সম্পুর্ন সুস্থ্য,নতুন করে বাচার স্বপ্ন দেখছে। রক্তশুন্যতার কারন জরায়ুতে টিউমার, মাসিকে প্রচুর ব্লিডিং ও জন্মগত ত্রুটি ( বামনত্ব- Dowerphism)। সারা শরীরে ডিফরমিটি- চেস্ট, কোমর ও হাত পা বিকলাঙ্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ এমনি একজন অসহায় জন্ম প্রতিবন্ধী মহিলার টিউমার অপারেশন করে অনন্য নজীর স্থাপন করলো। এদিকে এমনি করে
পাশের বেডে শুয়ে আছেন মিসেস রাহেলা নয় মাসের গর্ভবতী সহ ব্লিডিং নিয়ে আসছিলেন, জরায়ুর ফুল নীচে থাকার কারনে – অপারেশনের পরে মা বাচ্চা উভয়েই ভালো আছেন।অন্য আরেক বেডে মিসেস পারুল একলামসিয়া ও বারবার খিচুনি নিয়ে আসছিলেন, অপারেশনের পরে উনিও এখন সুস্থ্য আছেন বলে তার স্বজনরা জানায়।


সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এই বিভাগের আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব  সংরক্ষিত © ২০২০ স্বপ্নের আলো
Theme Customized BY Theme Park BD